গেইমারদের জন্য Google আনলো Stadia Cloud।

যারা গেম খেলতে পছন্দ করেন তারা সম্ভবত Sony PlayStation, GeForce, অথবা Microsoft X-box এগুলোকেই প্রেফার করে থাকেন। তবে এদের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করার জন্যে গুগল বাজারে আনছে নতুন ‘স্টাডিয়া ক্লাউড’ গেইমিং যা গেইমারদেরকে দেবে সম্পূর্ণরূপে নতুন অভিজ্ঞতা।

গেইমারদের জন্য Google  আনলো  Stadia Cloud।

যারা গেম খেলতে পছন্দ করেন তারা সম্ভবত Sony PlayStation, GeForce, অথবা Microsoft X-box এগুলোকেই প্রেফার করে থাকেন। তবে এদের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করার জন্যে গুগল বাজারে আনছে নতুন ‘স্টাডিয়া ক্লাউড’ গেইমিং যা গেইমারদেরকে দেবে সম্পূর্ণরূপে নতুন অভিজ্ঞতা।

গুগলের ‘স্টাডিয়া ক্লাউড’ গেইমিং বাজারে প্রচলিত কোন গেইমিং হার্ডওয়্যার বা কনসোলের মত নয়। স্টাডিয়ায় গেম খেলতে কোন ডিস্ক বা ডাউনলোডের প্রয়োজন হবে না। কারন এটা পুরোটাই ক্লাউডের ওপর নির্ভরশীল।

এটা সরাসরি গুগলের ক্লাউড সারভারে গেম স্টোর করবে এবং এই সারভার থেকেই গেম প্লে করবে।TV, Chromecast ultra, Laptop এমনকি Google এর Pixel যে কোন ডিভাইসে গুগলের স্টাডিয়া ক্লাউড গেইমিং খুবি দ্রুত গতিতে চলবে।

শুরুতেই গুগল স্টাডিয়া গুগলের প্রতিস্রত সব ফিউচার না পাওয়া গেলেও গুগল তার প্রথম ব্যবহার কারিদের জন্য একটা চমক রেখেছে।গুগল স্টাডিয়ায় শুরুর দিকের গেইমাররা এই গেইমিং প্লাটফর্মে বিনামূল্যে ২২ টি গেমস খেলার জন্যে সুযোগ পাবে।

এই ২২ টি গেমসের মধ্যে থাকবে Assassins Creed Odyssey, Destiny 2 The Collection, Tomb Raider, Mortal Combat 11, GYLT’র মত জন প্রিয় গেমসগুলি। ২০২২ এ রিলিজ হওয়ার আগেই এই ২২ টি গেমসের মধ্যে কিছু কিছু গেমস গুগল স্টাডিয়ায় খেলতে পারবে স্টাডিয়ার ব্যবহার কারিরা।

৬৯ ডলারের কনট্রলারের সঙ্গে গুগল স্টাডিয়া প্রো-টাইপ ইউজাররা ১০ ডলার প্রতি মাসে Subscription এ গেমগুলো খেলতে পারবে।

পোস্টটি ভালো লাগলে Like দিন, পোস্টটি সম্পর্কে কোন কিছু জানার থাকলে অবশই কমেন্ট করবেন এবং প্রতিদিন প্রযুক্তির সব letest নিউজের Update পেতে (প্রযুক্তির আলো.কম) এর সাথে থাকুন ।

What's Your Reaction?

like
1
dislike
0
love
0
funny
0
angry
0
sad
0
wow
0