Fitbit বাজারে নিয়ে এলো Fitbit Versa Lite স্মার্টওয়াচ

কম দামে smartwatch চাচ্ছেন? বাজারে অনেক ধরণের smartwatch পাওয়া যাচ্ছে কম দামে। তবে Fitbit Versa এবং Fitbit Ionic-এর দামটা একটু বেশিই! তাই কোম্পানি বের করছে Fitbit Versa Lite।

Fitbit Versa Lite Edition হচ্ছে গত বছরের সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া Fitbit Versa-এর নয়া সংস্করণ। দাম কমানোর জন্য বেশ কিছু ফিচার বাদ দেয়া হয়েছে। যদিও সবচেয়ে সস্তা নয়, তবুও Versa-এর মূল দাম থেকে বেশ কম ডিভাইসটির। Ionic থেকে তো আরো কম। এর মাধ্যমে কেনার দিক থেকে প্রথম সারিতে চলে এসেছে ডিভাইসটি। কেউ wearable ব্যবহার করা শুরু করতে চাইলে এটি দিয়ে শুরু করতে পারে।

Fitbit Versa Lite ছাড়ের তারিখ এবং দামঃ

ডিভাইসটি এখন প্রি-অর্ডার করা যাবে। যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যে চলতি মাসেই বিক্রয় শুরু হতে পারে। ছাড়ের তারিখ এখনো জানা যায়নি। দামের ব্যাপারটিই মূল আকর্ষণের। মাত্র ১৫৯ মার্কিন ডলার/১৪৯.৯৯ পাউন্ড/২৪৯.৯৫ অস্ট্রেলিয়ান ডলার! মূল Fitbit Versa-এর দাম ছিলো ১৯৯.৯৫ মার্কিন ডলার/১৯৯.৯৯ পাউন্ড/২৯৯.৯৫ অস্ট্রেলিয়ান ডলার।


Versa-এর দাম কিছু কিছু জায়গায় কমতে দেখা গিয়েছে। সুতরাং আশা করা যায় Versa Lite-এর দামও ছাড়ের পর কিছুটা কমে যাবে। Amazon বড়দিন উপলক্ষ্যে Fitbit Versa বিক্রি করেছিলো মাত্র ১৩৫ পাউন্ডে/১৪৫ মার্কিন ডলারে। আশা করা যায় Fitbit Versa Lite খুচরা বিক্রেতারা আগামী কয়েক মাসের মধ্যে কমিয়ে ফেলবে। তবে এ ব্যাপারে পূর্ণ নিশ্চয়তা প্রদান কঠিন।

ডিজাইন ও ডিসপ্লেঃ

Fitbit Versa যারা ব্যবহার করেছেন, তারা জানেন অনেক ডিজাইন পাওয়া যায় এটির। কোম্পানির সবচেয়ে হালকা smartwatch হিসেবে Lite Edition-এর ব্যাপারেও একই কথা। তবে আকারের ব্যাপারে সঠিক জানা যায়নি।পরীক্ষণের সময়ে ডিভাইসটিকে বেশ আরামদায়ক মনে হয়েছিলো। কব্জি ছোটো থাকলে পরতে সুবিধা। Fitbit Ionic থেকেও ভালো মিলবে হাতের সাথে।

Fitbit বাজারে নিয়ে এলো Fitbit Versa Lite স্মার্টওয়াচ

সামনে থাকছে touchscreen। ব্যবহৃত সকল প্রযুক্তি সম্পর্কে জানা যায়নি। তবে full-color display থাকছে। আশা করা যায় তার resolution হচ্ছে 300 x 300(Fitbit Versa-এর মতো)। পরীক্ষণের সময়ে বেশ উজ্জ্বল এবং পরিষ্কার মনে হয়েছে। তবে Fitbit-এর screen প্রযুক্তি Apple Watch 4 বা অন্য কিছু Wear OS ডিভাইসের মতো স্পন্দনশীল মনে হয়নি।

মোটা bezel আছে screen-এর আশেপাশে। তবে কালো watch face-এ জিনিসগুলো বুঝা দুষ্কর। Bottom bezel-এর সাথে থাকছে Fitbit logo। Fitbit Versa Liteবডির বাম পাশে থাকছে একটি মাত্র বাটন। এর মাধ্যমে ঘড়িটি অন করা যাবে। ডিভাইসটির সাথে silicone band থাকবে, তবে অন্যান্য band-ও থাকার সুযোগ রয়েছে। Fitbit Versa accessories-ও  যোগ করা যাবে Versa Lite-এর সাথে।


কালার অপশন হিসেবে থাকছে white, lilac, mulberry এবংmarina blue।শেষোক্ত দুটি সংস্করণে পুরো ডিভাইসটিই থাকছে একই রঙের। সাধারণতঃ এরকম ফিচার দেখা যায় না Fitbit পণ্যে।

Fitnessঃ

Fitbit Versa-এর মতোই Versa Lite সংযুক্ত করা যাবে GPS-এর সাথে। এতে বাইরে ডিভাইসটি নিয়ে শরীরচর্চা করা সহজ হবে, দৌঁড় বা সাইকেল চালাতে গেলে ট্র্যাকিং ও পথনির্দেশনা পাওয়া সহজ হবে। Versa Lite-এ থাকছে কোম্পানির নিজস্ব PurePulse 24/7 heart rate tracker। এটি থাকছেডিভাইসের পেছনের দিকে। বিভিন্ন কর্মকান্ড, যেমন যোগব্যায়াম, সাইকেল চালানো ইত্যাদিতে হৃদকম্পন মাপতে সক্ষম হবে।

Fitbit বাজারে নিয়ে এলো Fitbit Versa Lite স্মার্টওয়াচ

ব্যবহারকারীর চলাফেরাও ট্র্যাক করতে পারবে ডিভাইসটি। ফলে ব্যায়াম করতে করতে মাঝখানে একটু বিশ্রাম নিলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডিভাইসটিও সময় গণনা থামিয়ে দিবে। Top-end Fitibitপণ্যের মতো on-screen workout থাকছে না এটিতে। অন্যান্য ফিচারের মধ্যে আছে শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যায়াম, হৃদপিন্ডের fitness level এবং নারীস্বাস্থ্য ট্র্যাকের ব্যবস্থা। দেহের প্রতিদিনকার অবস্থা জানা পূর্ণরূপে জানা যাবে ডিভাইসটির মাধ্যমে। লম্বা সময়ের তথ্যগুলোও ভেঙে ভেঙে দেখার সুযোগ থাকছে।

Smartwatch ফিচারঃ

Fitbit-এর smartwatch বলতে গেলে Wear OS বা watchOS-এর মতো শক্তিশালী নয়, যেগুলো Apple Watch ব্যবহার করে। তবে বিভিন্ন third-party app ব্যবহারের সুযোগ আছে। Fitbit Versa Lite-এ Fitbit Pay বা গান আপলোড সুযোগ নেই। এগুলো পেতে হলে Fitbit Versa Special Edition অথবা অস্ট্রেলিয়াতে লভ্য সাধারণ Fitbit Versa কিনতে হবে। অবশ্য Versa Lite-এ স্মার্টফোনের নোটিফিকেশন পাওয়া যাবে। যদি Android phone হয়, নোটিফিকেশনের উত্তরও দেয়া যাবে। এগুলো নিয়ে অবশ্য আরো কিছু পরীক্ষণ চালানো লাগবে।


ব্যাটারিঃ

Fitbit-এর দাবী অনুযায়ী Versa Lite একবার চার্জে চার দিন টানা চলবে। তবে মনে রাখতে হবে, ব্যবহারের উপরই মূলতঃ বিষয়টি নির্ভর করে। সমানতালে একটানা কাজ করলে তো ব্যাটারি একটু আগে আগেই শেষ হয়ে যাওয়ার কথা। মূল Fitibit Versa-এর ব্যাপারে একই দাবী কোম্পানির।পরীক্ষণের দেখা গিয়েছে, ডিভাইসটি মোটামুটি তিন চার দিন টিকে।

পোস্টটি ভালো লাগলে Like দিন, স্মার্টওয়াচটি সম্পর্কে কোন কিছু জানার থাকলে অবশই কমেন্ট করবেন এবং প্রতিদিন প্রযুক্তির সব letest নিউজের Update পেতে (প্রযুক্তির আলো.কম) এর সাথে থাকুন ।

আরও পড়ুনঃ  Samsung বাজারে নিয়ে এলো Galaxy Watch Active ।