Honda-এর EV Prototype: দেখতে যেন আসল গাড়ি

২০১৭ সালে প্রথম বৈদ্যুতিক গাড়ির চেহারা উন্মোচন করেছিলো Honda। গত বুধবার আরো বিস্তারিত জানা গেলো গাড়িটি সম্পর্কে। অদ্ভুত বিষয় হলো, Urban EV-এর প্রথম সংস্করণটি যা দেখা গিয়েছিলো, তা আসলে prototype-এর একটি prototype! সর্বশেষ সংস্করণ, যার নাম দেয়া হয়েছে Honda e Prototype, আগামী সপ্তাহে Geneva Motor Show-তে অভিষেক হয়েছে গাড়িটির ।

Honda-এর EV Prototype: দেখতে যেন আসল গাড়ি

বছরের শেষ দিক থেকে উৎপাদনে যাবে গাড়িটি। এরপর প্রথমে পাওয়া যাবে ইউরোপে, ধীরে ধীরে অন্যান্য দেশের বাজারে ঢুকবে। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে এটিই হবে EV platform-এর নির্মিত Honda-এর প্রথম গাড়ি। Honda-এর দাবী মোতাবেক গাড়িটির ঘন্টায় ২০০ কিমি (ঘন্টায় ১২৪ মাইল) পর্যন্ত গতি ওঠাতে পারবে। মাত্র ৩০ মিনিট চার্জ দিলেই ৮০% ব্যাটারি পূর্ণ হয়ে যাবে। ব্যবহৃত প্রযুক্তি সম্পর্কে খুব বেশী জানা যায়নি। তবে গাড়ির অভ্যন্তরীণ অংশের কাজ প্রায় সম্পূর্ণ হয়ে এসেছে। গাড়িটির আলাদা একটি retro futuristic charm আছে, যা গাড়িপ্রেমীদের আকৃষ্ট করতে বাধ্য!


অভ্যন্তরে তিনটি আলাদা আলাদা পর্দার মাধ্যমে instrument clusterএবং infotainment unit তৈরি করা হয়েছে। Hondaযেমনটি বলছিলো, আরোহীদের নিজস্ব জীবনযাত্রার সাথে সংযুক্ত রাখার জন্য এই dual screen horizontal display বিভিন্ন রকম intelligent applications এবংservices-এর সমাহার হচ্ছে। বলা বাহুল্য, display-টি intuitive এবং customizable। সর্বোচ্চ ব্যবহারের লক্ষ্যে এমন high-end interfaceতৈরি। এর মাধ্যমে গাটি কেবল গাড়িই থাকবে না, বরং প্রাত্যহিক জীবনের অংশ হয়ে যাবে।

অন্যান্য উপাদানের মধ্যে থাকছে গাড়ির দরজার “pop out” হাতল। গাড়ির আশপাশে তাকাবার জন্য Side mirror-এর বদলে থাকছে ক্যামেরা। বিষয়টি একদম নতুন নয় যদিও, পূর্বে Audi E-tron electric SUV-এও দেখা গিয়েছে। Byton এবং Faraday Future-এও এমনটি আনার চিন্তা করা হচ্ছে। তবুও Honda বলছে, দরজার হাতল এবং ক্যামেরার ব্যবস্থা এমন ধরণের গাড়ির জন্য একদম অনন্য।

গাড়ির চার্জিং পোর্টটি বনেটে ভেতর একদম মাঝ বরাবর অবস্থিত। বনেটটি থাকছে গাড়ির সামনের দিকে। গাড়ির যেকোনো পাশ থেকে তা ব্যবহার করা যাবে। গ্লাসের আবরণের মধ্যে থাকছে দৃশ্যমান LED lighting।

আজ আবার Volvo sub-brand Polestar তার প্রথম বৈদ্যুতিক গাড়ির উন্মোচন করেছে। নামো হচ্ছে Polestar 2। Tesla Model 3-এর সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বী ধরা হচ্ছে একে। Honda EV-এর দাম বা প্রযুক্তি সম্পর্কে এখনো সব জানা যায়নি, তাই ঠিক কার প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছে এটি, বলা মুশকিল। তবে ডিজাইন এবং গতি দেখে একে Daimer-এর Smart এবং আসন্ন Forease-এর প্রতিদ্বন্দ্বীতায় ফেলা যেতে পারে। সময়ই সব বলে দিবে।


মাত্রই যুক্তরাষ্ট্র এবং জাপানে Clarity EV ছাড়া শুরু করেছে Honda। হাইব্রিড গাড়ির কিংবদন্তী বলে গণ্য Honda ধীরে ধীরে Nissan-এর মতো কোম্পানির কাছে বৈদ্যুতিক যানবাহনের দিক থেকে খানিক পিছিয়ে পড়েছে। সম্ভবত এবারের বৈদ্যুতিক গাড়ি Honda-এর মোড় ঘুরিয়ে দিবে।

পোস্টটি ভালো লাগলে Like দিন, ফোনটি সম্পর্কে কোন কিছু জানার থাকলে অবশই কমেন্ট করবেন এবং প্রতিদিন প্রযুক্তির সব letest নিউজের Update পেতে (প্রযুক্তির আলো.কম) এর সাথে থাকুন ।