MacBook Air 2019: কি কি দেখতে চাই আমরা

বহু বছর পর গত নভেম্বরে নতুন MacBook Air এনেছে Apple। বেশ আধুনিক কিছু ফিচার আনা হয়েছে এটিতে। তবে আমাদের ধারণা, Apple যদি MacBook Air 2019 যদি এ বছরই বের করে, চাইলে আরো চমৎকার কিছু আনতে পারে।অবশ্য এখনো আমরা বলতে পারি না Apple এ বছর Mac Pro 2019 বাদে আর কি আনবে বাজারে। তাই MacBook Air 2019 কবে বের হবে, তাও নিশ্চিৎ করে বলা যায় না। তবে MacBook Air-এ কি কি থাকতে পারে এবং কি কি থাকা চাই, সে ব্যাপারে একটা তালিকা তো প্রস্তুত করাই যায়।পেইজটি তাই বুকমার্ক করে রাখুন। যেকোনো খবর বা তথ্য আসা মাত্রই আমরা আপডেট দিচ্ছি।

পূর্বানুমান করা দুষ্কর, যেহেতু Apple তার এরকম main steam ল্যাপটপের ব্যাপারে একটু অদ্ভুত আচরণই করে বৈকি! Redesign-এর পর MacBook Air ২০১১-এর জুলাইতে এসেছিলো। পরবর্তী MacBook Air-ও এপ্রিল-জুলাইয়ের মধ্যেই এসেছিলো। তবে সময় নিয়েছে চার বছর, তথা ২০১৫ সালে ছাড়া হয়েছিলো।এরপর ২০১৬ সালে Appleকিছুই বের করেনি। ২০১৭-এর জুনে সেই পুরোনো 5th-generation processor এবং আরেকটু গতিসম্পন্ন SSD নিয়ে আবারো MacBook Air আনা হয়।২০১৮-এর নভেম্বরে সর্বশেষ MacBook Air 2018 ছাড়া হয়। থাকে redesigned chasis এবং কিছু অভ্যন্তরীণ উন্নতি। ২০১৯-এর গ্রীষ্মকালেই আরেকটি MacBook Air আমরা আশা করছি না। কাজেই যদি এবছরই আসে, হয়তো নভেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। কে জানে, হয়তো ২০২০ সালও চলে আসতে পারে।





MacBook Air হলো ল্যাপটপে macOS চালাবার সর্বাধিক সস্তা পদ্ধতি। তবে MacBook Air 2018-এর দাম পড়েছিলো ১১৯৯ মার্কিন ডলার, যেখানে তার আগের version-এর দাম ছিলো ৯৯৯ মার্কিন ডলার। আমাদের বিশ্বাস পরবর্তী MacBook Air-এর দাম একই রকমই থাকবে। এতে অবশ্য complete redesign হবে না, যার জন্য দাম বাড়ার কোনো যৌক্তিক কারণও নেই। আরেকটু কম দামে Apple-এর পণ্য দেখার আশা করাও মুশকিল । MacBook Air 2018-তে আধুনিকতার প্রচুর ছোঁয়া ছিলো। যেমন তাতে ছিলো 8th-generation Amber Lake fanless processors, modern SSDs এবং একটি Retina display। তবে অনেকে যেমনটা ভেবেছিলেন, অতোটা যুগান্তকারীও ছিলো না এসব। উন্নতি সাধনের অনেক উপায় রয়েছে এখনো। সেসব মাথায় রেখেই নিম্নবর্ণিত জিনিসগুলো দেখতে চাই আমরা।

MacBook Air 2019-এর processor অতো খারাপ নয় বটে, তবে যেহেতু এটি fanless dual-core chip, অন্যান্য ল্যাপটপ থেকে তার গতি কম। হালকা-পাতলা ধরণের নোটবুকে এটি মানাতো। তবে MacBook Air কিন্তু MacBook Pro 2018 থেকে বেশ পুরু। সুতরাং আমরা আশা করি Appleতার এই পণ্যে কিছু full-flat Ultrabook-class processor বসাবে। সাথে fresh cooling solution-ও দরকার। কে জানে, Intel-এর Ice Lake processor বাজারে এলে হয়তো অল্প তাপ উৎপন্নকারী Ultrabook-class processor-এর দেখা পাওয়া যাবে।



নতুন বছরে নতুন MacBook-এ নতুন কিবোর্ড। হ্যাঁ, MacBook-এর বর্তমান কিবোর্ডগুলো body হালকা ও ultraportableকরতে সাহায্য করে বটে। কিন্তু Apple-এর সাধারণ কিবোর্ড থেকে Butterfly কিবোর্ড নিয়ে বেশি কথা উঠেছে।Third-generation Butterfly কিবোর্ডের নিচে একটি রাবার ফিল্ম বসানো হয়েছিলো, যাতে কিবোর্ড ঠিকঠাক কাজ করে। কিন্তু তা সত্ত্বেও MacBook Air-এ সমস্যা দেখা দিচ্ছে। আর তার উৎপত্তি key press-এর পুনরাবৃত্তি।নতুন কিবোর্ড ডিজাইন করা ছাড়া কিভাবে Apple এ সমস্যার সমাধান করবে, আমরা নিশ্চিত নই। তবে একটি প্যাটেন্টে দেখাচ্ছে যে Apple এরকম কিছুই করছে। হতে পারে একটি touchscreen MacBook keyboard-এর দেখা পাবো আমরা। আর এটি দিয়েই হয়তো সমস্যার সমাধান হবে।




বড় SSD-এর দামও বড় অংকের, তা সবারই জানা। তবে upgrade cost-টি কেমন একটু বেশি বেশিই না?সাধারণ একটি MacBook Air-এ থাকে মাত্র 128GB SSD। বিষয়টি cloud storage বা কম app ব্যবহারকারীদের জন্য প্রযোজ্য হতে পারে। তবে SSD upgrade করে 256GB-তে আনতে চাইলেই গুনতে হবে ২০০ মার্কিন ডলার (২০০ পাউন্ড, ৩০০ অস্ট্রেলিয়ান ডলার)। আর 1.5TB SSD চাইলে গুনতে হবে ১২০০ মার্কিন ডলার (১২০০ পাউন্ড, ১৮০০ অস্ট্রেলিয়ান ডলার)। এ দাম দিয়ে নতুন আরেকটি MacBook Air কেনা যাবে।Apple-এর SSD বেশ গতিসম্পন্ন। তবে 1.5TB SSD-এর এহেন দাম আসলেই অতিরিক্ত বেশী। MacBook Air 2019-এর storage upgrade আরেকটু সস্তা হওয়া দরকার।

পোস্টটি ভালো লাগলে Like দিন, ল্যাপটপটি সম্পর্কে কোন কিছু জানার থাকলে অবশই কমেন্ট করবেন এবং প্রতিদিন প্রযুক্তির সব letest নিউজের Update পেতে প্রযুক্তির আলো.কম-এর সাথে থাকুন ।