শীঘ্রই বাজারে আসছে Samsung-এর নতুন Galaxy Sport Watch

Samsung Galaxy Watch অনেক কারনেই বিখ্যাত। Highly capable smartwatch বলেই শুধু কথা নয়,  smartwatch র‍্যাংকিং-এও Samsung এর নাম সবার উপরে। Operating system হিসেবে এতে Wear OS বা Watch OS-এর বদলে আছে Tizen operating system। জাঁকালো ডিজাইন, দীর্ঘ ব্যাটারি লাইফ এবং বিভিন্ন tracking skill-এর তৈরি smartwatch-টি । তবে smartwatch-টিকে একদম নিখুঁত বলা যাবে না। তাই পরবর্তী Samsung smartwatch-এ আরেকটু ভালো কিছুর দেখা চাই আমরা। আসলে Samsung Galaxy Watch 2 আসবার ধারণা করেই এ আর্টিকেলটি লেখা হয়েছিলো। কিন্তু হঠাৎ এর মাঝে Samsung Galaxy Sport নামক নতুন এক ডিভাইসের খবর পাওয়া গেলো। তাই আর্টিকেলে Galaxy Sport সম্পর্কে পাওয়া খবরগুলো নিয়ে আলাপ হবে।




 

Samsung Galaxy Watch-এর আগমন ২০১৮-এর ৯ই অগাস্ট। তার সাথে এসেছিলোS amsung Galaxy Note 9। সম্ভাবনা আছে ২০১৯-এর অগাস্টের দিকে Samsung Galaxy Watch 2 আসবে, সাথে থাকবে Samsung Galaxy Note 10।অবশ্য এখন Samsung Galaxy Sport-এর ব্যাপারে প্রযুক্তি প্রেমীদের বাজার বেশ গরম। হতে পারে Samsung Galaxy Watch-এর পাশাপাশি নতুন এক series বের করছে কোম্পানিটি।একটি FCC filing-এ নতুন একটি ডিভাইসের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে সেটাই জল্পনা-কল্পনার Samsung Galaxy Sport। ডিভাইসটির আগমন তারিখ অতি সন্নিকটে। দক্ষিণ কোরিয়া এবং তাইওয়ানেও ব্যাপারটি নিশ্চিত হয়েছে।

এটি যদি Galaxy Watch Active হয়েই থাকে, তবে ফেব্রুয়ারীর ২০ তারিখ নাগাদ Samsung Galaxy S10-এর সাথে তার বিষয়েও কিছু শোনা যেতে পারে। অবশ্য এ কথার কোনো নিশ্চয়তা নেই। ডিভাইসটির ছাড়ের তারিখের ব্যাপারেও সঠিক কিছু জানা যায়নি। যদি ডিভাইসটি Samsung Galaxy Watch 2 হয়ে থাকে, তবে হয়তো ২০১৯-এর একটু শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। দামের ব্যাপারে তেমন খবর পাওয়া যায়নি। Samsung Galaxy Watch-এর 42 mm version-এর জন্য ৩২৯ মার্কিন ডলার হয়েছিলো। 46 mm version-এর জন্য দাম পড়েছিলো ৩৪৯ মার্কিন ডলার। LTE-সহকারে নিলে দাম আরেকটু বেশি। সুতরাং Samsung Galaxy Sport-এর দাম এমনটাই বা এর আশে পাশেই হওয়ার কথা।




Samsung-এর পরবর্তী smartwatch-এর নাম সম্ভবত Galaxy Watch 2 হবে না। কেননা তা Samsung Galaxy Watch series-এর অন্তর্ভুক্ত। আর তা আসতে আসতে ২০১৯ পারও হয়ে যেতে পারে।অনেকের মতে নতুন ডিভাইসটির নাম হবে Samsung Galaxy Sport। আবার অনেকে বলছেন Samsung Galaxy Watch Active। বোঝা যাচ্ছে smartwatch-টির ডিজাইনে একটু adventure ও rugged ভাব থাকবে। হয়তো শেষ পর্যন্ত Samsung Galaxy Watch Active নাম পাবে ডিভাইসটি।

Samsung Galaxy Watch 2 নিয়ে তেমন কথাবার্তা শোনা যাচ্ছে না। তবে কিছু খবরে Samsung Galaxy Sport-এর দেখা মিলছে। তাতেSamsung-এর পরবর্তী smartwatch, বিশেষ করেGalaxy Watch 2 সম্পর্কে কিছুটা ধারণা আনতে সাহায্য করছে।নিচেই দেখতে পাচ্ছে সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ উপস্থাপনাটি । 91Mobiles এনেছে এই ডিজাইনের ছবি।এতে দেখা যাচ্ছেround design, chrome body এবং ঘড়িটির ডান পাশে দুটি গোলাকার বাটন। আশা আছে smartwatch-টি বিভিন্ন রঙের হবে। যদি এটি নিশ্চিত নয় যে Galaxy Watch-এর মতো smartwatch-টি দুটি ভিন্ন আকৃতিতে পাওয়া যাবে কিনা।

উপরের তথ্যের উপর ভিত্তি করে Tiger Mobiles-এর উপস্থাপনায় একই ডিজাইনে ভিন্ন রঙে তিনটি মডেল দেখা গিয়েছে smartphone-টির। রূপালী বর্ণের সাথে নীল, কালো ও গোলাপ রঙের ডিজাইন দেখা গিয়েছে। তবে spec বা size-এর ব্যাপারে তেমন নিশ্চিত খবর পাওয়া যায়নি।আরো কিছু উপস্থাপনায় দেখা যায়, smartphone-এর bezel-কে দাঁতালো না রেখে মসৃণ রাখা হয়েছে। মনে হচ্ছে এটি rotate করা যাবে না। ডান কোণার দুটি বাটন দেখতেও পূর্বের উপস্থাপনা থেকে ভিন্ন। Samsung Galaxy Watch দারুণ, তবে কিছু উন্নতির সুযোগ রয়েছে। Tizen operating system বেশ ভালো wearable operating system, তবে এতে Wear OS বা Watch OS থেকে কম সংখ্যক app চলে।তাই Galaxy Watch 2-তে Whatsapp, Google Maps, Facebook Messengerইত্যাদি চলার মতো উপযোগী ব্যবস্থা Samsung গ্রহণ করবে, এটাই আশা। Samsung Galaxy Watch বেশ ভালোই tracking করে, তবে stress tracking-টা কেন যেন জমে না! দেখা যায় স্বয়ংক্রিয়ভাবে stress tracking হচ্ছে না।এবং যেহেতু হৃদ কম্পনের ওপর নির্ভর করে ফলাফল দেয় এই tracking ।




 

বন্ধুদের সাথে প্রতিযোগীতায় নামলে দেহ আরেকটু ক্রিয়াশীল হয়। Samsung Galaxy Watch এ ব্যাপারে বেশ সাহায্য করে। বন্ধুদের হয়তো এজন্য Galaxy Watch-এর দরকারও পড়বে না, কেবল Gear Watch বা Samsung Health App থাকলেই চলবে।তবে ব্যক্তিগতভাবে কোনো বন্ধুকে হয়তো challenge করার কোনো ফিচার হয়তো Samsung আনবে তার পরবর্তী smartwatch-এ।Samsung Galaxy Watch চার্জ নেয় wirelessly। তবে এজন্য চার্জারটিকেও হতে হবে নিজের, অন্য কারো নয়। সমস্যাটা এখানেই। দেখা গেলো smartwatch-এর চার্জ শেষ হয়ে গেলো, কিন্তু চার্জ দেয়ার ব্যবস্থা আর হলো না।সুতরাং Samsung Galaxy Watch 2-তে এ সমস্যা থাকবে না, সকল wireless charger-এ কাজ করবে, কেবল নিজেরটাতেই আটকে থাকবে না, এমনটাই আশা।Tizen ব্যবহার করায় Samsung Galaxy Watchআদতে Bixby-নির্ভর। যেখানে Wear OSহলো Google Assistant-নির্ভর। এবং Bixby-এর মান Google Assistant-এর ধারে কাছেও না। Google Assistant বেশ user-friendly, তাই ব্যবহারকারীদের ডিভাইস ব্যবহারে বেগ পেতে হবে না।Galaxy Watch ব্যবহার করতে Bixby-এর সাহায্য নিতে হবে না তেমন। তবে Bixby-এর বিশেষ উন্নতিসাধন হলে তা ভালোই ফলপ্রসু হবে।

Android ও iOS, উভয়তেই Samsung Galaxy Watch ভালো চলে।তবে Android-এ কাজ অধিক ভালো করে। সমস্যা হয় iOS-এ। iPhone-এর সাথে ডিভাইস paired থাকলে notification পড়া যায়, কিন্তু reply করা বা communication করা যায় না।Samsung সম্ভবত এ সমস্যার সমাধান করতে পারবে না, যেহেতু মূল পরিবর্তন আনতে হবে Apple থেকেই। তবে আমরা তো আশা করতেই পারি। যদি সবকিছু আরেকটু উন্নতির মুখ দেখে, তাহলে হয়তো Apple Watch 5, এমনকি অন্যান্য ডিভাইসের বিকল্প হিসেবে Galaxy Watch 2 আবির্ভূত হতেও পারে।amsung Galaxy Watch-এর কিছু version আছে যেগুলো LTE support করে, তবে কিছু নির্দিষ্ট নেটওয়ার্কে। এটি অবশ্য সবার সাথে যায় না। Samsung Galaxy Watch 2-তে তাই এমন LTE Model-এর দেখা চাই যা সকল নেটওয়ার্কে চলবে, এবং এতে এটি সর্বজনগ্রাহ্য রূপ পাবে।

পোস্টটি ভালো লাগলে Like দিন, watch সম্পর্কে কোন কিছু জানার থাকলে অবশই কমেন্ট করবেন এবং প্রতিদিন প্রযুক্তির সব letest নিউজের Update পেতে (প্রযুক্তির আলো.কম) এর সাথে থাকুন ।