Samsung বাজারে এনেছে Galaxy Bud সাথে থাকছে Wireless Charging

Samsung সম্ভবত এবার বাজিমাত করেই ফেললো! Apple-এর সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বীরূপে গণ্য দক্ষিণ কোরিয়ার গর্ব Samsung বাজারে এনে ফেলেছে wireless Galaxy Bud। মার্চের ৮ তারিখ থেকে এর দাম পড়বে ১২৯.৯৯ মার্কিন ডলার। ইউরোপে মার্চের ২৯ তারিখ থেকে পাওয়া যাবে ১৪৯ পাউন্ডে। আর বিনামূল্যে পাওয়া যেতে পারে Samsung-এর নতুন folding phone-গুলোর সাথে। পাওয়া যাবে Galaxy S10 ও S10 Plus-এর আগাম অর্ডারের সাথেও।

Samsung বাজারে এনেছে Galaxy Bud সাথে থাকছে Wireless Charging

দেখতে অসাধারণ হচ্ছে হেডফোনগুলো। ওষুধের বড়ির আকৃতির এ Bud-গুলো Airpod-এর কাছাকাছিই।Battery life ছয় ঘন্টা, দরকার পড়লে সাত ঘন্টার সেবাও দিতে পারবে। এক্ষেত্রে Galaxy Bud-কে বাহবা দিতেই হবে, যদিও রিচার্জ করার সময়ে বারবার বাধা পেলেও তা সহ্য করার ক্ষমতা Airpod-এর বেশী।

অন্যান্যwireless earphone থেকেও Galaxy Bud উঁচুপর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে wireless charging-এর ব্যবস্থার আনয়নে। Galaxy S10 ডিভাইসগুলোতে থাকছে reverse wireless charging। এতে Galaxy Bud ফোন থেকেই কিছুটা চার্জ নিতে সক্ষম হবে। দু’সময়ে এটা ভালো কাজ করবে; এক, জরুরী প্রয়োজনে; দুই, বন্ধুদের সামনে একটু আলাদা ভাব নিতে গেলে। বাসায় ফেরা মাত্রই wireless charging চলতে থাকবে, ফলে Bud-এ থাকবে পূর্ণ চার্জ। যখন তখন Bud নিয়ে বেরিয়ে পড়তেও বাধা থাকবে না। ব্যাপারটি আশীর্বাদই বটে!


Samsungতার Bud-এর pairing-এর জন্য Apple-এর ব্যবস্থাই গ্রহণ করেছে। Bud container-এর ঢাকনা খুলবেন, অমনি pair হয়ে যাবে ডিভাইসের সাথে।

Galaxy Bud-এর শব্দের কাজ AKG করেছে। বিষয়টি Samsung বেশ ভালোই প্রচারণায় নিচ্ছে। ব্যাপারটি হঠাৎ জানলে বেশ উৎফুল্ল বোধ হতে পারে, তবে হ্যাঁ, সতর্কও থাকতে হবে। Samsung এখন AKG-এর মালিক (Harman-এর মালিকানার মাধ্যমে), সুতরাং ‘sound by AKG’ কথাটাকে বিপণনের কাজে ইচ্ছেমতো ব্যবহার করতে পারে তারা। AKG চমৎকার অডিও তৈরিতে এক স্বনামধন্য নাম।পূর্বেও বেশ ভালো কিছু হেডফোন তৈরি করেছে তারা।তবে এর মানে এই না যে, AKG প্রকৌশলীবৃন্দ অবশ্যই wireless bud-এর শব্দ নিয়ে এক ধাক্কায়ই নিখুঁত কাজ করতে পারবেন। Leicaও Hasselblad camera branding স্মরণ করা যেতে পারে, যা যথাক্রমে Huaweiএবং Motorola ব্যবহার করতো।

তবে সর্বাধিক আকর্ষণীয় দিকটি হলো Galaxy Bud-এর ক্ষুদ্র, বাঁকানো ও নুড়ি-পাথর আকৃতির ডিজাইন। ডিজাইনার যেন চাচ্ছিলেন মানবদেহের নিকট সংস্পর্শে থাকা ডিভাইসগুলো নরম হোক, আর তার প্রতিফলনই দেখা যাচ্ছে Bud-গুলোতে।

সম্ভবত Samsung Galaxy Bud নিয়ে অধীর হওয়ার যথেষ্ট ভালো কারণ আছে। শক্তিশালী battery life, দৃঢ় পরিমাপ এবং Airpodথেকে সাশ্রয়ী হওয়ার ব্যাপারগুলোকে সাথে নিয়ে সম্ভবত সম্পূর্ণ বাজারকে true wireless bud-এর দিকে একরকম ঠেলেই দিচ্ছে Samsung। ২০১৯ সালটি হবে Budডিভাইসের উত্থান-পতনের বছর, এবং Samsung অনেক আগে থেকেই যেন ভালো প্রস্তুতি গ্রহণ করে নিচ্ছে।

পোস্টটি ভালো লাগলে Like দিন, Galaxy Bud টি সম্পর্কে কোন কিছু জানার থাকলে অবশই কমেন্ট করবেন এবং প্রতিদিন প্রযুক্তির সব letest নিউজের Update পেতে (প্রযুক্তির আলো.কম) এর সাথে থাকুন ।