Vivo বাজারে নিয়ে এলো V15 Pro সাথে থাকছে Pop-Up Selfie ক্যামেরা

গত বছর স্মার্টফোন জগতে এক ধরণের বিপ্লব এনে দিয়েছে Vivo। বিভিন্ন পরীক্ষামূলক কিন্তু অসাধারণ hardware দিয়ে মাত করে ফেলেছে ক্রেতাসমাজকে। এবার ২০১৯ সালের জন্য আসছে V15 Pro। কোম্পানির Nex flagship থেকে এ ডিভাইসটি আসছে high-end feature নিয়ে। এতে করে mid-range পণ্যগুলোরও উন্নতি সম্ভব হবে বলে ধরা হচ্ছে। প্রযুক্তিগুলো সবখানে পাওয়া যাচ্ছে অথচ কোনো সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বী পাওয়া যাচ্ছে না, এমন এক অদ্ভুত ডিভাইস হয়ে যাচ্ছে এটি।

Vivo বাজারে নিয়ে এলো V15 Pro সাথে থাকছে Pop-Up Selfie ক্যামেরা

সম্প্রতি Vivo-এর V series screen design-এর দিক থেকে অগ্রদূত হয়ে আসছে। যেমন V9 ছিলো প্রথম Android ফোন যাতে notch ছিলো। V11-এ ছিলো ইতিহাসের ক্ষুদ্রতম notch। V15-এ কোনো notch-ই ছিলো না; 6.4-inch OLED display নিয়ে Nex-এর pop selfie camera-সহ হাজির হয়েছিলো।


এবারের ডিভাইসের front camera আরো দুর্দান্ত। এতে থাকছে 32MP sensor, যা pixel-binning 8MP default setting-এর থাকা সত্ত্বেও Nex-এর 5MP unit থেকেও দারুণ কাজ করবে। ফোনের পেছনের দিকে আছে triple-camera array, যার একটি 48-megapixel main sensor(default 12MP), একটি 8-megapixel wide-angle cameraএবং একটি 5-megapixel depth sensor-সমৃদ্ধ ক্যামেরা।

Rear camera তিনটি পাশাপাশি রাখা হয়েছে। তার সাথে রয়েছে pop-up selfie camera। এর মাধ্যমে একটি ‘ক্যামেরা সমষ্টি’তে রূপ পেয়েছে ফোনের সে স্থানটি। পাশাপাশি এতগুলো ক্যামেরা থাকা বেশ ভালোই দেখা, এবং এতে ফোনের ডিজাইন কিন্তু নষ্ট হচ্ছে না!

Vivo বাজারে নিয়ে এলো V15 Pro সাথে থাকছে Pop-Up Selfie ক্যামেরা 3

AI Triple Camera কথাটি চলেই আসে এই ‘ক্যামেরা সমষ্টি’র নাম করতে। Vivo খুব ভালোভাবেই এই বিষয়টি branding করেছে। যেমন ডিভাইসটিতে থাকছে AI Super Night Scene, AI Super Wide-Angle Camera এবং AI Body Shaping। শেষোক্তটি Vivo-এর AI Face Beauty-এর মতোই, তবে ছবিগুলো আরো নজরকাড়া হবে।

V15 Pro হলো প্রথম ফোন যাতে Qualcomm Snapdragon 675 processor ব্যবহার করা হচ্ছে। 710 ঘোষণার পরপরই এর ঘোষণা দেয়া হয়েছিলো। এবং বাস্তবে বিস্ময়করভাবে 710-এর চেয়ে বেশী কাজ করছে এটি। বিভিন্ন কারণে হয়তো চরম benchmarking করা হচ্ছে না। তবে ব্যক্তিগত কৌতূহল থেকে কিছু দ্রুত পরীক্ষা করা হয়েছিলো। এতে ফলাফল ছিলো দুর্দান্ত। এরকম কোনো পরিসংখ্যান হয়তো ক্রয়ের সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করবে না, কেননা benchmarking দিয়ে সব কিছু হয় না। অবশ্য পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে 675 processor-এর Cortex-A76 core যেকোনো mid-range ডিভাইসের জন্য যথেষ্ট ভালো কাজ করবে। সপ্তাহশেষে প্রথম Snapdragon 855 ব্যবহারকারী ফোনের ঘোষণা আসবে, যা 675-এর গুরুত্ব বোঝাতে সক্ষম হবে।


In-display fingerprint sensor-এর ক্ষেত্রে Vivo কিংবদন্তীতুল্য। এবং দিনে দিনে আরো উন্নত হচ্ছে তাদের কাজ।V15 Pro-তে থাকছে fifth-generation component যা অত্যন্ত দ্রুতগতিতে কাজ অরে। অবশ্য ইতোমধ্যেই ছাড় পাওয়া Nex Dual Display হয়তো দৌড়ে এগিয়ে আছে। Selfie camera দিয়ে face unlockকরা যাচ্ছে। তবেfingerprint authentication-এর মতো এতটা নিরাপদও হচ্ছে না তা।

Vivo বাজারে নিয়ে এলো V15 Pro সাথে থাকছে Pop-Up Selfie ক্যামেরা 3

এছাড়া ব্যাটারি ক্ষমতা থাকছে 3700mAh, 6 বা 8GB RAM, 128GB storage, Android 9 Pie এবং headphone jack থাকছে। এভাবে ভালোই একটি upper-midrangeফোনে রূপ নিয়েছে V15 Pro। তবে একটি ব্যতিক্রম আছে; micro USB। ডিভাইসের সাথে dual-engine fast charger পাওয়া যাচ্ছে ঠিকই। তবে যেখানে Xiaomiতার ১৫০ মার্কিন ডলার ফোনেওUSB-C port রাখছে, সেখানে কেনই বা Vivo ক্রেতাবর্গকে reversible cableব্যবহারের সুযোগ দিচ্ছে না, তা-ই প্রশ্ন। তারবিহীন চার্জিং-এর কথাই তো বাদই দেয়া হলো!

সব মিলিয়ে V15 Pro ভালোই শক্তিশালী ডিভাইস হবে। Vivo-এর বছর শুরুটাও ভালো হবে আশা করা যাচ্ছে। কে ভেবেছিলো mid-range স্মার্টফোনগুলোতে Micro USB বাদ দেয়ার আগেই bezel ও notch বাদ দেয়া হবে?

ভারতে ডিভাইসটির দাম পড়বে ২৮৯৯০ রুপি, বা ৪০০ মার্কিন ডলার ট্যাক্স ছাড়া বাংলাদেশে ৩৫,০০০ টাকা । অন্যান্য স্থানে দাম স্থান অনুযায়ীই নির্ধারিত হবে।

পোস্টটি ভালো লাগলে Like দিন, ফোনটি সম্পর্কে কোন কিছু জানার থাকলে অবশই কমেন্ট করবেন এবং প্রতিদিন প্রযুক্তির সব letest নিউজের Update পেতে (প্রযুক্তির আলো.কম) এর সাথেই থাকুন ।